রোহিঙ্গাদের ত্রাণের নৌকায় বৌদ্ধদের হামলা

সেপ্টেম্বর ২১ ২০১৭, ২২:৫৪

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সরবরাহে বাধা দিয়েছে একদল বৌদ্ধ বিক্ষোভকারী। রেডক্রসের ত্রাণ নিয়ে রাজ্যের সংঘাতকবলিত মংডুগামী একটি নৌকায় পেট্রলবোমাও নিক্ষেপ করা হয়। পরে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, রাখাইনের রাজধানী সিত্তের বন্দরে বুধবার রাতে আন্তর্জাতিক কমিটি অব রেডক্রসের (আইসিআরসি) ৫০ টন ত্রাণসামগ্রী নৌকায় তোলার সময় এ হামলা হয়। লাঠি ও লোহার পাইপ হাতে কমপক্ষে ৩০০ ব্যক্তি সেখানে এসে এাণকর্মীদের বাধা দেয়। একপর্যায়ে পেট্রলবোমাও ছুড়ে বিক্ষোভকারীরা।

রেডক্রসের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ত্রাণকর্মীদের কেউ আহত হননি।

গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর ৩০টি চৌকিতে হামলা হয়। এরপর সেখানে দমন-পীড়নে নামে মিয়ানমারের সেনা ও পুলিশ। ‘জাতিগত নিধন’ অভিযানের মুখে

এরইমধ্যে সোয়া চার লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। রাখাইনে থাকা রোহিঙ্গা মুসলমানরাও এখন খাদ্যসংকটে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে সেখানে ত্রাণ সরবরাহের উদ্যোগ নেয় রেডক্রস।

রাষ্ট্র সমর্থিত দৈনিক গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার বৃহস্পতিবার দেশটির তথ্য কমিটিকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, বিক্ষুব্ধ জনতাকে নিয়ন্ত্রণে সেখানে ২০০ পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং আটজনকে আটক করা হয়। ত্রাণবাহী নৌকাটিতে প্লাস্টিক শিট, বালতি ও মশারি ছিল।

মিয়ানমার সরকারের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘মানুষ ভেবেছিল এ সাহায্যগুলো শুধু বাঙালিদের জন্য পাঠানো হচ্ছে।’

রেডক্রসের মুখপাত্র বলেন, ‘আমাদের কর্মীরা তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছে। তাদের জানানো হয়েছে, আমরা সবাইকে সহায়তা করি ও স্বচ্ছভাবে কাজ করি।’

ত্রাণবাহী নৌকাটি এখনও সিত্তেতেই রয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>