লিটন ভাই রাগ করলেন কার উপরে ?

জুন ২৮ ২০১৭, ১৮:০৩

রোমানা বাবলু ॥ যখন আত্মীয় স্বজনদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার কথা ছিল সহায়তার জন্য তখন তারা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। আর আমার সঙ্গি বেলায়েত বাবলুকে বাঁচাতে নিঃস্বার্থভাবে হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন দৈনিক ইত্তেফাকের সাংবাদিক লিটন ভাই। বলতে দ্বিধা নেই লিটন ভাইসহ কয়েকজনের সহযোগিতায় আজ বাবলু নতুন জীবন ফিরে পেয়েছে। সংগত কারনেই আমি সাংবাদিকের স্ত্রী কিন্তু কখনো কোথায়ও কিছু লিখিনি। কিন্তু লিটন ভাইয়ের অকাল মৃত্যুতে অনেকটা ব্যথিত চিত্তে আজ লিখতে বসলাম। যেহেতু সাংবাদিক না তাই আমার লিটন ভাইয়ের সাথে কাজ করার সৌভাগ্য আমার হয়নি। তবে বাবলুর কারনে তাঁর সাথে আমার প্রায়শই যোগাযোগ হতো। তিনি আমাকে ডাকতেন রোমেনা বাবলু নামে। লিটন ।ভাইকে চিনি ১০ বছর ধরে। দেখা হলেই লিটন ভাই হাসি মুখে বলতো রোমেনা বাবলু কেমন অছো ? বিভিন্ন প্রোগ্রামে যখন তাকে দেখতাম সব সময় তার মুখে হাসি লেগে থাকতো। গত ১০ মার্চ বাবলু হৃদরোগে আক্রান্ত হলে লিটন ভাইয়ের সাথে আমার যোগাযোগ অনেক বেড়ে যায়। বাবলু’র অসুস্থতার সময় যে মানুষটি আমাকে সবচেয়ে বেশী সাহস জুগিয়েছে তিনি হলেন লিটন বাশার ভাই। বাবলুর জন্য বারবার ফেসবুকে পোস্ট আর পত্রিকায় লেখা ছাপিয়েছেন তিনি। রাত ১২

টা কিংবা দুটো যখনই ফোন দিতাম লিটন ভাই’র সাড়া পেতাম। কোন ধরনের বিরক্ত না হয়ে আমার কথা শুনতেন এবং সমাধান দিতেন। একটা কথা না বললেই নয় যখন ঢাকার হৃদরোগ ইনস্টিটিউট হাপাতালে বাবলুকে বারান্দায় মেঝেতে ফেলে রাখা হয়েছিল তখন লিটন ভাইকে ফোন দিয়েছিলাম। সাংবাদিক তৌফিক মারুফ ভাইয়ের সাথে কথা বলে মাত্র এক ঘন্টার মধ্যে বাবলুর জন্য সিটের ব্যবস্থা করেছিলেন লিটন ভাই। প্রতিদিন ফোন করে বাবলুর খোঁজ নিতেন তিনি। তার অকৃপন সহযোগিতায় বাবলু সুস্থ হয়ে বরিশালে আসার পর একদিন তাঁর (লিটন ভাই) ইত্তেফাকের অফিসে যাই। তিনি আমাকে নানা পরামর্শ দিয়ে বলেছিলেন বাবলুর মতো রোগীরা কারনে-অকারনে মেজাজী হয়, রাগ করে। আমি যেন বাবলুর সাথে রাগ না করি। ভাই আপনার নির্দেশনা মতো আমি এখন আর বাবলুর সাথে রাগিনা। কিন্তু আপনি কোন অভিমানে, কার সাথে রাগ করে আমাদের অভিভাবক শূন্য করে না ফেরার দেশে চলে গেলেন। আপনাকে তো আমাদের মতো লোকদের বিশেষ প্রয়োজন ছিল। এখন ভালো মন্দ কোন ব্যাপার হলে আমরা কার কাছে যাবো। অভিভাবকের মতো আমাদের দিকে সহায়তার আর কে বাড়িয়ে দেবে। বড় অসময়ে আপনি আমাদের আপনার স্নেহ থেকে বিরত করে চলে গেলেন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>