শিশু আদুরি নির্যাতন : গৃহকর্ত্রী নওরিনের যাবজ্জীবন

জুলাই ১৮ ২০১৭, ১৪:৪০

ডেস্ক রিপোর্টঃ শিশু গৃহকর্মী আদুুরির ওপর বর্বর নির্যাতনের মামলায় গৃহকর্ত্রী নওরিন জাহানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে এক লাখ টাকা জরিসমানা করেছে আদালত। এই জরিমানার টাকা ক্ষতিপূরণ হিসেবে আদুরিকে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
আজ মঙ্গলবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩-এর বিচারক জয়শ্রী সমাদ্দার সকালে এই রায় ঘোষণা করেন।
২০১৩ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর পল্লবীর একটি ডাস্টবিন থেকে অচেতন অবস্থায় আদুরিকে (১১) উদ্ধার করা হয়েছিল। চার বছরের ব্যবধানে আদুরির শারীরিক কাঠামো পরিবর্তন হলেও নির্যাতনের ক্ষতচিহ্নগুলো এখনও রয়ে গেছে।
আদুরি পটুয়াখালী সদর উপজেলার জৈনকাঠির কৌরাখালি গ্রামের প্রয়াত খালেক মৃধার কনিষ্ঠ মেয়ে। অভাবের সংসারে মা সাফিয়া বেগম দিশেহারা হয়ে নয় সন্তানকেই গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজে দেন। আদুরিকে এক প্রতিবেশীর সহযোগিতায়
রাজধানীর পল্লবীতে নওরীন জাহান নদীর বাসায় কাজে দেওয়া হয়েছিল। সেখানে নানা অজুহাতে দিনের পর দিন অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয় আদুরি। নির্যাতনের একপর্যায়ে নদী ও তার মা মৃত ভেবে আদুরিকে ডাস্টবিনে ফেলে দেন। সেখান থেকে দুই নারী কর্মী অর্ধমৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন আদুরিকে। পরে পুলিশের সহায়তায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে ভর্তি করা হয়। দেড় মাস চিকিৎসার পর সুস্থ হলে পরিবারের কাছে আদুরিকে হস্তান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় আদুরির মামা এক বাড়ির নিরাপত্তা প্রহরী নজরুল চৌধুরী বাদী হয়ে পল্লবী থানায় মামলা করেন। মামলায় নদী ও তার মা ছাড়াও নদীর স্বামী সাইফুল ইসলাম মাসুদ, তাদের আত্মীয় সৈয়দ চুন্নু মীর ও রনিকে আসামি করা হয়।
Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>