শিশু ছাত্রীকে বেত্রাঘাতের ঘটনায় মাদ্রাসা সুপারসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আগস্ট ১২ ২০১৭, ২২:১২

মাত্র ১০০ টাকা চুরির অপবাদে মুখে গামছা বেঁধে এক শিশু ছাত্রীকে ১৬০টি বেত্রাঘাত করার ঘটনায় বরিশালের গৌরনদী উপজেলা সদরের খাদিজাতুল কোবরা (রা.) মহিলা কওমী মাদ্রাসার মহিলা সুপার খাদিজা বেগমসহ ৪ শিক্ষিকার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। নির্যাতিতা ছাত্রীর মা উপজেলার পশ্চিম শাওড়া গ্রামের সৌদি প্রবাসী কামাল হোসেন বেপারীর স্ত্রী রেনু বেগম বাদী হয়ে শনিবার বিকেলে গৌরনদী মডেল থানায় এই মামলা দায়ের করেন।

সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে ২ শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানান, নির্যাতিতা ছাত্রীর মা বাদি হয়ে মাদ্রাসার সুপার খাদিজা বেগমসহ অপর ৩ শিক্ষিকাকে আসামি করে শিশু

নির্যাতন আইনের ৭০ ধারায় একটি মামলা করেছেন। পুলিশ আজ সন্ধ্যায় উপজেলার দিয়াসুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে মামলার আসামি মাদ্রাসার শিক্ষিকা হাফিজা বেগম ও শাওড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে অপর শিক্ষিকা ফাতেমা আক্তার লিজাকে গ্রেফতার করেছে। অপর দুই আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে ১০০ টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে মাদ্রাসার সুপারের নির্দেশে অপর ২ শিক্ষিকা হাফিজা ও রোকসানা ওই মাদ্রাসার আবাসিক ছাত্রী সুমাইয়ার মুখে গামছা বেঁধে দুই জনে ১৬০টি বেত্রাঘাত করে এবং হাতের আঙ্গুলে সুই দিয়ে খুঁচিয়ে রক্তাত্ব জখম করে। এ ঘটনায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ শিক্ষিকা রোকসানা ও হাফিজাকে সাময়িক বরখাস্ত করে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>