সাংবাদিক ভজহরি কুন্ডু আর নেই

জুলাই ০৬ ২০১৭, ২২:২৮

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি: পটুয়খালীর কলাপাড়া প্রেসক্লাবের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দৈনিক সংবাদ পত্রিকার কলাপাড়া প্রতিনিধি ও পৌর শহরেরর জগন্নাথ আখড়া কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ সাংবাদিক ভজহরি কুন্ডু আর নেই। গত সোমবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর তাঁকে দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে ঢাকা নেয়ার পথে বুধবার রাত সাড়ে আট টায় সে পরলোকগমন করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। তিনি মা, স্ত্রী, দুই মেয়ে, ভাই-বোনসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

আজ সকালে তাঁর মরদেহ কলাপাড়া প্রেসক্লাবে নিয়ে আসা হলে স্থানীয় সহকর্মীরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এখানে সকল গণমাধ্যমকর্মী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং কালো ব্যাজ ধারন করেন। এরপর মৃতদেহ পৌর শহরের জগন্নাথ আখড়া মন্দিরে নিজ বাসভবনে নেওয়া হয়। সেখানে পরিবারের সদস্যরা শেষবারের মতো তাঁকে দেখেন। দুপুর ১২ টায় কলাপাড়া পৌর শহরের মহাশ্মশানে তাঁর

শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হয়।

ভজহরি কুন্ডু ১৯৭৭ সালে ঢাকা থেকে প্রকাশিত নতুন বাংলা পত্রিকার মাধ্যমে সাংবাদিকতায় প্রবেশ করেন। এর পর তিনি দৈনিক আজাদ, খুলনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক পূর্বাঞ্চলে কাজ করেন। সর্বশেষ তিনি দৈনিক সংবাদের কলাপাড়া উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি কলাপাড়া প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য, পরবর্তিতে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পটুয়াখালী প্রেসক্লাবেরও তিনি এক সময় সদস্য ছিলেন। ন্যাপের (মোজাফফর) কলাপাড়া থানা কমিটির দপ্তর সম্পাদক ছিলেন। স্বাধীনতা পরবর্তি সময়ে স্থানীয় নাট্য মঞ্চের সঙ্গেও তিনি জড়িত ছিলেন।
এদিকে মধ্য উপকূলের এই গুণী সংবাদকর্মীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, কলাপাড়া পৌর মেয়র সাংবাদিক বিপুল হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম রাকিবুল আহসান, ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি দিদার উদ্দিন আহম্মেদ মাসুম বেপারী, কলাপাড়া প্রেসক্লাব সভাপতি মেজবাহউদ্দিন মাননু। এছাড়াও পটুয়াখালী, কলাপাড়া, আমতলী কুয়াকাটা, মহিপুর প্রেসক্লাব ও কলাপাড়া ও আমতলী রিপোর্টার্স ইউনিটি নেতৃবৃন্দসহ সকল গণমাধ্যমকর্মী এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কলাপাড়া উপজেলা কমান্ডের নেতৃবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

Facebook Comments