সাত বছরের প্রেমের পরিণতি বেওয়ারিশ লাশ দাফন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সাত বছর ধরে প্রেমের সম্পর্কের পর প্রেমিকের হাতে খুনের মধ্য দিয়ে করুণ পরিণতি ঘটেছে মিথিলা আক্তার (১৭) নামে এক শিক্ষার্থীর। তার নাম-পরিচয় শনাক্ত করতে না পেরে লাশ বেওয়ারিশ হিসাবে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলাম দাফন করে। পরে পুলিশ ওই ছাত্রীর নাম পরিচয় শনাক্ত করে।

রাজধানীর রামপুরার একরামুন্নেছা কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের ছাত্রী মিথিলা আক্তার। সাত বছর ধরে সরকারী বাঙলা কলেজে বিবিএতে অধ্যয়নরত আসলাম হোসেনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। পড়াশুনার পাশাপাশি আসলাম সেজান ম্যাংগো জুস কোম্পানিতে সেলসম্যান হিসাবে কাজ করেন।
দু’জন নাম পরিচয় গোপন রেখে গত ৮ জুলাই সকালে মোহাম্মদপুরের বিজলী মহল্লায় তাজিন আবাসিক হোটেলের ১০৭ নম্বর কক্ষে ওঠেন। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আসলাম মিথিলাকে খাটের মশারি টানানো লোহার রড দিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। নাম পরিচয়হীন মুমুর্ষূ অবস্থায় পুলিশ মিথিলাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। ১২ দিন অচেতন থাকার পর ২০ জুলাই মিথিলার মৃত্যু হয়। এক সপ্তাহ পর মিথিলার নাম পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় লাশ আঞ্জুমানে মুফদুিল ইসলাম দাফন করে। রামপুরা থানাধীন ৩৯/১, পূর্ব রামপুরার বাড়িতে মিথিলা পরিবারের সঙ্গে থাকতেন। বাবা গিয়াস
উদ্দিন জমি বেচাকেনার ব্যবসা করেন।
মোহাম্মদপুর থানার ওসি মীর জামাল উদ্দিন বলেন, তাজিন আবাসিক হোটেলের নথিতে আশরাফ নাম দেয়া হলেও ওই যুবকের প্রকৃত নাম আসলাম হোসেন। হোটেলের ওই কক্ষ থেকে মিথিলার এসএসসি পরীক্ষা দেয়ার একটি প্রবেশপত্র উদ্ধার করা হয়। ওই প্রবেশপত্রের সূত্র ধরে নিহত তরুণীর নাম পরিচয় শনাক্ত করা হয়। এরপর তরুণীর মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে আসলামকে শনাক্ত করা হয়। গত ২৫ জুলাই রাতে আসলামকে আমিনবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে রিমান্ডে নিলে পুলিশের কাছে হত্যার ঘটনাটি স্বীকার করেন।
আসলাম পুলিশকে জানায়, সাত বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। দুই মাস আগে থেকে তারা একে অপরকে সন্দেহ করতো। তিনি মাঝে মধ্যেই ভেবেছেন যে মিথিলার সঙ্গে হয়তো অন্য কারো প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। আবার মিথিলাও তার ওপর এমন সন্দেহ করেছে। ঘটনার দিন এ বিষয়টি নিয়ে দুই জনের মধ্যে সন্দেহ হয়। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে কথাকাটি। এর মধ্যে খাটের স্ট্যান্ডের লোহার রড দিয়ে মিথিলাকে পেটানো হয়। এতে রক্তাক্ত হয়ে পড়লে তিনি ধারণা করেন যে মিথিলা মারা গেছে। এই ভেবে হোটেল থেকে পালিয়ে যান।
Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>