সিদ্দিকুরকে চেন্নাই নেয়া হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজধানীর শাহবাগে আহত তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী সিদ্দিকুর রহমানের চোখের উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সরকারি খরচে ভারতের চেন্নাই নেয়া হচ্ছে।
সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। খবর বাসসের

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সিদ্দিকুরের চিকিৎসার আর্থিক খরচ বহনসহ সার্বিক দায়িত্ব সরকার নিয়েছে।

সে অনুযায়ী স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সোমবার সকালে সিদ্দিকুরকে সুস্থ করতে সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা প্রদানের নির্দেশ দিলে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. গোলাম মোস্তফা এ ব্যবস্থা নেন।

এর আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, চোখের চিকিৎসার জন্য সিদ্দিকুর রহমানকে সরকারি খরচে বিদেশে পাঠানো হবে। তিনি বলেন, ‘সিদ্দিকুরকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে।

মন্ত্রী জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সিদ্দিকুরকে দেখার পর এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সিদ্দিকুরের চিকিৎসার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। সিদ্দিকুরের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিতে প্রধানমন্ত্রী তাকে পাঠিয়েছেন।

পুলিশের টিয়ার শেলের আঘাতে সিদ্দিকুরের চোখ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে

কি না? এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটা অভিযোগ। বিষয়টি তদন্তের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসের মধ্যে ওই প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

পরীক্ষার তারিখ ঘোষণাসহ সাত দফা দাবিতে গত বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাতটি কলেজের শিক্ষার্থীরা শাহবাগে বিক্ষোভ করেন। তাদের অবস্থানের জন্য সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণ দেখিয়ে বাধা দেয় পুলিশ।

একপর্যায়ে পুলিশ আন্দোলনকারীদের ওপর টিয়ার শেল ছোড়ে। ‘পুলিশের টিয়ার শেলের’ আঘাত লাগে সিদ্দিকুরের দুই চোখে। একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, পুলিশের একজন সদস্য দৌড়ে এসে খুব কাছ থেকে শিক্ষার্থীদের লক্ষ্য করে টিয়ার শেল ছুড়ছেন। তার পরপরই মাটিতে পড়ে যান সিদ্দিকুর। রাস্তার ওই স্থানটি রক্তে লাল হয়ে যায়।

পরে পুলিশের কাজে বাধা দেওয়া এবং হত্যাচেষ্টার অভিযোগে অজ্ঞাতনামা ১ হাজার ২০০ জনকে আসামি করে মামলা করে পুলিশ।

তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর স্নাতক শেষে সরকারি চাকরির জন্য বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন। চিকিৎসক জানিয়েছেন, তার দুই চোখে আলো ফেরার সম্ভাবনা খুব কম।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>