‘সিন্ডিকেট’ আতঙ্কে পবিপ্রবি ছাত্রলীগ

জুলাই ২৪ ২০১৭, ২৩:০০

পবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ প্রায় তিন বছর পর সম্মেলন এলেও কর্মীদের মতামত এড়িয়ে ‘সিন্ডিকেট’র মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্ধারণের শঙ্কায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পবিপ্রবি) শাখা ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশীদের অনেকে। মঙ্গলবার অনুষ্ঠেয় পবিপ্রবি ছাত্রলীগের দ্বিতীয় সম্মেলন ঘিরে এরইমধ্যে ‘সিন্ডিকেট’র তৎপরতা শুরু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সংগঠনের কয়েকজন নেতা। সাম্প্রতিক কয়েকটি ঘটনায় সম্মেলনে কর্মীদের মতামত ছাড়াই ‘উপর’ থেকে নেতৃত্ব ঠিক করে দেওয়ার শঙ্কা বেড়েছে বলে জানিয়েছে একাধিক পদপ্রত্যাশী। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সংগঠনের এক নেতা বলেন, ‘মিছিল-মিটিং সবই করি কিন্তু এতা পরিশ্রম করে লাভ নেই। এখন নেতা হইতে যোগ্যতা লাগে না, ‘সিন্ডিকেট’ যাকে নেতা হিসেবে দেখতে চাইবে সেই নেতা হবে।’ পবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের অপর এক নেতা বলেন, ‘হঠাৎ করে সিন্ডিকেটের এক প্রার্থীর পক্ষে তদবিরে সম্মেলনে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসানের যোগদানের খবরে পদপ্রত্যাশীদের আতঙ্ক অনেকেটা বেড়েছে।’ এদিকে প্রত্যাশিত পদ পেতে লবিং-তদবিরে শেষ মুহূর্তে ব্যস্ত সময় পার করছেন বিভিন্ন পদের প্রার্থীরা। নতুন কমিটির শীর্ষ দুই পদে কারা আসছেন তা নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা। তবে দলের সাধারণ কর্মীরা চাইছেন, সম্মেলনের মাধ্যমে মেধাবী ও কর্মীবান্ধব ছাত্ররাই যেন নেতৃত্বে আসেন। পবিপ্রবি ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, আসন্ন কমিটিতে শীর্ষ দুই পদপ্রত্যাশীদের মধ্যে আলোচনায় রয়েছেন; বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি শুভ সাহা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস.এম শাহরিয়ার মিল্টন, রাকিবুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক শফিউল্লাহ অভি, সাংগঠনিক সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ, মোসায়েদুল ইসলাম সাদী, কেএম মেহেদী হাসান ও কাকন মিয়া। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, পবিপ্রবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কামরুজ্জামান

সোহাগের কাছের ছোট হিসেবে ক্যাম্পাসে অধিক পরিচিত বর্তমান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ। অপরদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সভাপতি আবিদ আল হাসান ও বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ সেরনিয়াবাতের সঙ্গে বর্তমান কমিটির আরেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোসায়েদুল ইসলাম সাদীর সুসস্পর্ক রয়েছে। এ কারণে ওই নেতাদের সুপারিশ ও তদবিরে ফেরদৌস আহমেদ ও মোসায়েদুল সাদী পেতে পারেন আসন্ন কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদ। তবে দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক ত্যাগের কারণে বেশ আলোচনায় আছেন বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি শুভ সাহা। রাজনৈতিক কারনে বেশ কয়েকবার হামলার শিকার শুভ সাহা। ওয়ান-ইলেভেনের মতো চরম প্রতিকূলতার মাঝেও দলের জন্য কাজ করেছেন ছাত্রলীগের এ নেতা।; ছাত্রলীগের সকল আন্দোলন সংগ্রামে সামনের সারিতে নেতৃত্ব দেয়া বর্তমান কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার মিল্টনকে নিয়েও আলোচনা ব্যাপক হচ্ছে ক্যাম্পাসে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের এলাকার ছেলে শাহরিয়ার মিল্টন গত ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারিসহ দলের দুর্দিনে মিছিল-সমাবেশে ছিলেন অগ্রভাগে।; স্থানীয় ছেলে হওয়ায় ক্যাম্পাসে জনপ্রিয়তায় অনেকটা এগিয়ে আছেন বর্তমান কমিটির য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক মো. রাকিবুল ইসলাম রাকিব। নির্যাতিত আওয়ামী পরিবারের সন্তান রাকিব রাকিবুল ইসলামের বিএনপি-জামায়াত আমলে রাজনৈতিক মামলায় তিনি কয়েকবার কারাবরণ করেন। ক্যাম্পাসে শিবর নিধনে তিনি ব্যাপক ভূমিকা পালন করেন।; এছাড়াও দলীয় কর্মকান্ডে সার্বিক সহযোগীতা ও অংশগ্রহণের জন্য বর্তমান কমিটির দপ্তর সম্পাদক শফিউল্লাহ অভির নাম শোনা যাচ্ছে জোরেশোরেই। পবিপ্রবি ছাত্রলীগের আসন্ন কমিটিতে তিনি পেতে পারেন সুপার ফাইভের গুরুত্বপূর্ণ একটি পদ। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর পবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের প্রথম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>