সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ইসির সংলাপ শুরু

জুলাই ৩১ ২০১৭, ১২:১৮

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রোডম্যাপ, আইন সংস্কার, সীমানা নির্ধারণসহ অন্যান্য বিষয়ে মতামত নিতে ধারাবাহিক সংলাপ শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এ সংলাপ শুরু হয়।

বিকাল ৪টায় ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে বৈঠকের বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানিয়েছে ইসি সূত্র।

নাগরিক সমাজের আমন্ত্রিত ৫৯ অতিথির বক্তব্যের জন্য ২ ঘণ্টা সময় ধরা হয়েছে। যদিও ইসি সচিবালয় জানিয়েছে, সংলাপের সুবিধার্থে বক্তব্যের সময় বাড়ানো হবে।

সংলাপে রোডম্যাপের সাতটি বিষয় ছাড়াও প্রাসঙ্গিক অন্য বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনার কথা রয়েছে। এরপর ধারাবাহিকভাবে রাজনৈতিক দল, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব, পর্যবেক্ষক, নারী নেত্রী ও নির্বাচন বিশেষজ্ঞদের সঙ্গেও সংলাপ করবে ইসি। এদিকে এবারের সংলাপে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রবেশাধিকার না দেয়ার কথা জানিয়েছে কমিশন। যদিও বিগত দুই কমিশনের আমলে এ ধরনের সংলাপে সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে রোববার ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন হেলালুদ্দীন আহমদ। পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, কেউ আগের মতো প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না। সংলাপের বিষয়ে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন একটি রোডম্যাপ প্রণয়ন করেছে। দেশবরেণ্য সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সোমবার (আজ) মতবিনিময় করা হবে। এটা ধারাবাহিকভাবে আরও কিছুদিন চলবে। এছাড়া দেশে যারা নারী নেতৃত্বে আছেন, সাংবাদিকসহ অন্যদের সঙ্গেও কথা বলা হবে। কমিশন যেটা অনুভব করেছে সেটা হল, সবার মতামত নিয়ে আগামী দিনগুলোতে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের আয়োজন করা।

সুশীল সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব, আইনজীবীসহ বিভিন্ন মহলে যাদের গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে তাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মতবিনিময় সভার সূচিতে দেখা গেছে, বেলা ১১টা ১০ মিনিটে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা ৫ মিনিট

স্বাগত বক্তব্য দেবেন। বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে ইসির সচিব বা অতিরিক্ত সচিব কার্যপত্র উপস্থাপন করার পর শুরু হবে মুক্ত আলোচনা, যা চলবে দুপুর সোয়া ১টা পর্যন্ত। এরপর ১৫ মিনিট সমাপনী বক্তব্য দেবেন সিইসি। দুপুর দেড়টায় নামাজ ও খাবারের বিরতি। আলোচনা শেষ না হলে দুপুর ২টার পর আবার শুরু হবে। বিকাল ৪টায় সংলাপ নিয়ে আনুষ্ঠানিক ব্রিফিং করার কথা রয়েছে।

কেউ আগের মতো প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না -ভারপ্রাপ্ত সচিব : ভারপ্রাপ্ত সচিব পদে হেলালুদ্দীন আহমদ রোববার দায়িত্ব নেয়ার পর ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। পরে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, জাতি চেয়ে আছে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। কেউ আগের মতো প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না। কমিশন রোডম্যাপ দিয়েছে। আমরা আস্তে আস্তে সেই পথে এগোবো।

চাপমুক্ত হয়ে কাজ করার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ সম্পর্কে জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত সচিব বলেন, মাঠপর্যায়ের বিশেষ করে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সবার সঙ্গে সমন্বিতভাবে কাজ করব। ইতিপূর্বে অনেকগুলো জাতীয় ও স্থানীয়ভাবে ভালো নির্বাচন হয়েছে। প্রতিটি নির্বাচন কিন্তু এভাবেই মোকাবেলা করা হয়েছে। সংলাপের মাধ্যমে সব দল নির্বাচনে অংশ নেয়ার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে কিনা- এমন প্রশ্নের উত্তরে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আশা করছি সব দলের অংশগ্রহণে আগামী সংসদ নির্বাচন হবে।

কমিশনের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা রোডম্যাপ মোতাবেক ধারাবাহিকভাবে সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে মতবিনিময় করব। আরও অনেক সময় আছে। আর আস্থা অর্জনে বর্তমান কমিশন ইতিমধ্যে অনেকগুলো ভালো নির্বাচন করেছে। অপর এক প্রশ্নের উত্তরে ভারপ্রাপ্ত সচিব বলেন, সব ধরনের ঝড়-ঝাপটা মাথায় নিয়ে কাজ করতে আমি মানসিকভাবে প্রস্তুত।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>