‘৩০০’ তাড়া করে জয়: বাংলাদেশ তিনবার

জুলাই ০১ ২০১৭, ১৬:৩৬

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কাল রেকর্ড গড়া এক জয় পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। লঙ্কানদের দেওয়া ৩১৭ রানের লক্ষ্য অনায়াসে তাড়া করেছে জিম্বাবুয়ে। অথচ দ্বীপদেশটিতে এর আগে কোনো দল ৩০০ রান করে কখনো হারেনি! জিম্বাবুয়েও মাত্র তৃতীয়বারের মতো ৩০০ রান তাড়া করে জিতল ওয়ানডেতে। ৩০০ রান তাড়া করে বাংলাদেশের জয়ও তিনবার!

ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৩৮ বার ৩০০ অথবা এর বেশি রানের লক্ষ্যে ব্যাট করেছে বাংলাদেশ। এর মাঝে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার ঘটনা কেবল তিনটি। ২০১৫ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের নেলসনে স্কটল্যান্ডের ৩১৮ রান তাড়া করে জেতাই এখন পর্যন্ত রান তাড়ায় বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রেকর্ড। ২০০৯ সালে প্রথমবারের মতো সাফল্যের সঙ্গে তিন শর বেশি রান তাড়া করে বাংলাদেশ। বুলাওয়েতে জিম্বাবুয়ের ৩১২ রান তাড়া করে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। তামিম ইকবালের ১৫৪ রানের ইনিংস সে ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ে রেখেছিল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

নেলসনে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৩১৮ তাড়া করার ম্যাচেও অনবদ্য অবদান তামিমের। সেদিন অবশ্য মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি পাননি। আউট হয়েছিলেন ৯৫ রানে। ফিল্ডিংয়ের সময় এনামুল হকের কাঁধের হাড় সরে যাওয়ায় একজন ব্যাটসম্যান নিয়ে কম নিয়ে সেদিন খেলছিল বাংলাদেশ। কিন্তু তামিমের পাশাপাশি মাহমুদউল্লাহর ৬২, মুশফিকুর রহিমের ৬০, সাকিব আল হাসানের

৫৪ আর সাব্বির রহমানের ৪২ রানে কঠিন পরিস্থিতি দারুণভাবে জয় করেছিল মাশরাফি বাহিনী। তামিম আর মাহমুদউল্লাহর ১৩৯ রানের জুটিই সেদিন ম্যাচে রেখেছিল বাংলাদেশকে। এরপর তামিম-মুশফিকের ৫৭, সাকিব-মুশফিকের ৪৬ আর সাকিব-সাব্বিরের ৭৫ রানের জুটিগুলো বেশ সহজেই বাংলাদেশকে এনে দেয় বিশ্বকাপে টিকে থাকার জন্য মহাগুরুত্বপূর্ণ এক জয়।

৩০০ বা এর বেশি রান তাড়া করে বাংলাদেশের আরও একটি জয় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে—দেশের মাটিতেই। ২০১৩ সালে সিরিজের শেষ ওয়ানডে ম্যাচে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডের ৩০৭ রান তাড়া করে বাংলাদেশ। ওপেনার শামসুর রহমান করেন ৯৬। এ ছাড়া নাঈম ইসলামের ৬৩ আর নাসির হোসেনের অপরাজিত ৪৪ রানে ৪৯.২ ওভারেই জয়ের ঠিকানা পেয়ে যায় বাংলাদেশ।

ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ সবচেয়ে বড় রান তাড়া করেছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে—২০০৫ সালে নটিংহামে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩৯১ রান করেছিল ইংলিশরা। সে ম্যাচে ২২৩ রানের বেশি করতে পারেনি বাংলাদেশ। বাংলাদেশের প্রথম ৩০০ রান তাড়া করার অভিজ্ঞতা হয় ২৭ বছর আগে, ১৯৯০ সালে। শারজার অস্ট্রেলেশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩৩৮ রান করেছিল নিউজিল্যান্ড। জবাবে বাংলাদেশ করেছিল ৫ উইকেটে ১৭৭ রান—তখন পর্যন্ত ওটাই ছিল ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান। আজহার হোসেন করেছিলেন দেশের হয়ে ওয়ানডেতে প্রথম ফিফটি।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>