৩৭ লাখ টাকা প্রতারনার মামলায় আরো দুই আসামী কারাগারে

অক্টোবর ১২ ২০১৭, ২১:৪৭

SAMSUNG CAMERA PICTURES

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভুয়া দলিল দেখিয়ে আপোষনামা দলিল রেজিষ্ট্রির করে দেয়ার কথা বলে প্রতারনার মাধ্যমে ৩৭ লাখ টাকা লোপাটের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় আরো দুই আসামীকে জেলে প্রেরন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তারা চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পন করে বিচারক মো. শাহীন উদ্দিন তাদের জেলে প্রেরনের নির্দেশ দেন। জেলে যাওয়া আসামীদ্বয় হলো- রূপাতলী ২৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দুল মজিদ খানের ছেলে জমির দালাল ফারুক খান ও ২৪নং ওয়ার্ডের হাতেম গাজীর ছেলে অস্ত্রধারী ডাকাত সর্দার ও ভূমিদস্যু কালু গাজী।

এর পূর্বে আদালতের দেয়া গ্রেপ্তারী পরোয়ানার পরিপ্রেক্ষিতে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ মামলার দ্বিতীয় নামধারী আসামী ও ভূমিদস্যু ফারুক খানের ভাই জাহাঙ্গীর খানকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়।

আদালত সূত্রে জানাগেছে, ২৪নং ওয়ার্ডের

বাসিন্দা মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে নওশাদ আহম্মেদ নান্টু ভোগদখলে থাকা ৩ দশমিক ১৫ একর জমির জাল দলিল তৈরী করে গ্রেপ্তার হওয়া প্রতারক জমির দালাল চক্র। এমনকি জমির মালিকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও করে তারা। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাদীকে ফাঁদে ফেলে জমির আপোষনামা দলিল রেজিষ্ট্রি করে দেয়ার কথা বলে নগদ ১৩ লাখ এবং চেকের মাধ্যমে ২৪ লাখ টাকা আত্মসাত করে আসামীরা। প্রতারনার বিষয়টি বুঝতে পেরে ভূমিদস্যু দলালদের বিরুদ্ধে মামলা করেন জমির মালিক নওশাদ আহম্মেদ নান্টু। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারিন করেন। সর্বশেষ গতকাল বৃহস্পতিবার পালাতক দুই আসামী আদালতে আত্মসমর্পন করলে বিচারক তাদের জেলে পাঠায়। এসময় বাদী পক্ষের আইনজীবী হিসেবে কোর্টে উপস্থিত ছিলেন বারের সাবেক সভাপতি দীলিপ কুমার ঘোষ।

Facebook Comments