৫ বছর পর বাবুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত

আপডেট : July, 14, 2017, 11:40 pm

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি: প্রায় ৫ বছরের দীর্ঘ প্রতীক্ষা আর সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বাবুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে আওয়ামী লীগের সংগঠক কাজী ইমদাদুল হক দুলাল সভাপতি, উপজেলা চেয়ারম্যান এস.এম খালেদ হোসেন স্বপন সাধারণ সম্পাদক এবং ছাত্রলীগ সভাপতি মৃধা মুহঃ আকতার-উজ-জামান মিলন সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও নবগঠিত ওই কমিটিতে উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মোস্তফা কামাল চিশতি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রলীগ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান সোহেলকে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট ওই কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছে। গতকাল বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তির রূপকার আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি এবং জেলা সম্পাদক আইনজীবী নেতা অ্যাডভোকেট তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস এমপি তাদের যৌথ স্বাক্ষরিত এক অনুমোদন পত্রের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। অনুমোদিত বাবুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট ওই পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা স্থান পেয়েছেন তারা হলেন,- সভাপতি কাজী ইমদাদুল হক দুলাল, সহ-সভাপতি শাহিনুল ইসলাম সিকদার, আমির হোসেন মাস্টার, কেরামত আলী মল্লিক, আব্দুল মান্নান হাওলাদার, অ্যাডভোকেট এমদাদুল হক খান, মিজানুর রহমান রাজা, নজরুল ইসলাম হাওলাদার, অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন ও আব্দুল মতিন রাঢ়ী, সাধারণ সম্পাদক এস.এম খালেদ হোসেন স্বপন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল চিশতি, কামাল হোসেন ও দেলোয়ার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মৃধা মুহঃ আকতার-উজ-জামান মিলন, ইঞ্জিনিয়ার শাহরিয়ার আহমেদ শিল্পী ও অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান সোহেল, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোস্তফা জামাল খোকন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফারজানা বিনতে ওহাব, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন আকন, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক হারিস আহমেদ মাস্টার, দপ্তর সম্পাদক পরিতোষ চন্দ্র পাল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আব্দুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহ আলম সিকদার, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন সরদার, বিজ্ঞান ও

প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শাহিনুর রহমান সিকদার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শিবানী রাণী দাস, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল করিম হাওলাদার, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আজাহার আলী মাঝি, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জুয়েল তালুকদার, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন আকন, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, স্বাস্থ্য ও জনসেবা বিষয়ক সম্পাদক আমির হোসেন মৃধা, কোষাধ্যক্ষ জাকির হোসেন, সহ-দপ্তর সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম পিন্টু, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বেপারী, সম্মানিত সদস্য ইতিহাসবিদ সিরাজ উদদীন আহমেদ, অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম, খালেদা ওহাব, বীর প্রতীক রত্তন আলী শরীফ, কে.এম জাহিদুর রহমান সজীব, অ্যাডভোকেট গোলাম মাহবুব, শাহজাহান সিকদার, রিফাত জাহান তাপসী, আনিসুর রহমান সিকদার, অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন, আলতাফ হোসেন দুলাল শরীফ, সৈয়দ হারুন অর রশিদ, মাসুদ করিম লাভলু, ইকবাল আহমেদ আজাদ, শহিদুল ইসলাম হাওলাদার, সরদার তারিকুল ইসলাম, জয়নাল আবেদিন হাওলাদার, নুরে আলম বেপারী, শামসুল আলম দলিল, আব্দুর রাজ্জাক আকন, সৈয়দ ফারুকুল ইসলাম, শওকত হোসেন হাওলাদার, শাহজাহান আকন্দ, হারুনুর রশিদ মোল্লা, সোহরাব আকন, হানিফ খান, জাহিদ হোসেন আনিস মোল্লা, মনিরুজ্জামান ফকির, শাহজাহান মানিক, আলমগীর বেপারী, মজিবুর রহমান বাচ্চু, মিজানুর রহমান পেয়াদা, মফিজুর রহমান পিন্টু, রফিক ইউ আহমেদ রোমান এবং কামাল হোসেন আকন। উল্লেখ্য, বিগত ২০১২ সালের ৩০ নভেম্বর সর্বশেষ বাবুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। বাবুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনে শুধু সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেছিলেন সেই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বর্তমান শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি এবং বিশেষ অতিথি সাবেক চীফ হুইপ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি। এরপর এই দীর্ঘ সময়েও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত না হওয়ায় নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ ও হতাশা ছড়িয়ে পড়েছিল। তবে গতকাল ওই কমিটি প্রকাশের পরে পাল্টে গিয়েছে দৃশ্যপট। ঝিমিয়ে পড়া আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মাঝে নতুন করে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।

Facebook Comments