বরিশাল লাইভ

ঢাকা, জানুয়ারি ১১, ২০১৭

প্রকাশ : জানুয়ারি ১১, ২০১৭ , ৭:২১ অপরাহ্ণ
পটুয়াখালীর শিক্ষক সমিতির নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি :: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় প্রতারণা ও আত্মসাতের অভিযোগে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি, কলাপাড়া উপজেলা শাখার সম্পাদক মাহমুদুল আলম পলাশ এর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা এবং তার সহধর্মীনি শিক্ষিকা রুমি বেগমের বিরুদ্ধে সমন ইস্যু করেছে বিজ্ঞ কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত।

আজ বুধবার পৌর শহরের বিধবা হাফেজা বেগমের নালিশী মামলায় সন্তুষ্ট হয়ে কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারক মো: মনিরুজ্জামান এ আদেশ প্রদান করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ইটবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো: মাহমুদুল আলম পলাশ বাদুরতলী এলাকার বিধবা হাফেজা বেগমের কাছ থেকে সাড়ে চৌদ্দ শতাংশ সম্পত্তি ক্রয়ের নিমিত্তে ৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা মূল্য নির্ধারন করে

adv-1327513911
আমমোক্তার নিযুক্ত হন। এসময় বিধবা হাফেজা বেগমকে মাত্র ৭০হাজার টাকা প্রদান করেন মাহমুদুল আলম পলাশ।

বাকী টাকা পরিশোধের লক্ষ্যে হাফেজা বেগমকে শাহজালাল ব্যাংকের একটি চেক প্রদান করেন তিনি। এরপর হাফেজা বেগম তার পাওনা টাকা ব্যাংক থেকে উত্তোলনের জন্য গিয়ে জানতে পারেন তাকে প্রদত্ত চেকের ওই হিসাব নম্বরে কোন টাকা নেই। দীর্ঘদিন এভাবে দেই-দিচ্ছি করে মাহমুদুল আলম পলাশ তার সহধর্মীনি শিক্ষিকা রুমি বেগমের নামে সমুদয় সম্পত্তি আমমোক্তারের ক্ষমতা বলে দলিল সম্পাদন করে দেন এবং বিধবা হাফেজা বেগমের সাথে প্রতারনা করে তার পাওনা সাড়ে চার লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেন।

কলাপাড়া থানার অফিসার-ইন-চার্জ জিএম শাহনেওয়াজ জানান, আদালতের নির্দেশনা অনুসারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর