মঈন তুষারের মামলার গ্রহনযোগ্যতার শুনানী ৩০ মে

আপডেট : March, 14, 2017, 8:33 pm

স্টাফ রিপোর্টারঃবিসিসি মেয়র,পুলিশ কমিশনারসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতা মঈন তুষারের দায়েরকৃত মামলার গ্রহনযোগ্যতা শুনানীর জন্য দিন ধার্য করেছে আদালত।মেসার্স অদিতী এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটর হিসেবে তুষারের দায়েরকৃত মামলার আরজীতে ভুল থাকায় মঙ্গলবার সিনিয়র সহকারী জজ হাদিউজ্জামান বিচারাধীন সদর আদালত এ আদেশ দেন।আদালত সূত্র জানায় তুষার সোমবার টেন্ডারে অনিয়মের অভিযোগে ওই আদালতে বিসিসির মেয়র,প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা,প্রধান প্রকৌশলী,সুপারিন্টেডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার,নির্বাহী প্রকৌশলী,বাজেট কাম হিসাব রক্ষণ অফিসার,এল জি ই ডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী,বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার,ডিসি,পুলিশ কমিশনার,এস এইচ এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটর শাহাবুদ্দিন আজাদ,মেসার্স শাহজালাল এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটর শাহজালাল,মেসার্স জি এম কন্সট্রাকশনের প্রোপাইটর গোলাম মাওলা ও আইএমইডি সিপিটিইউ’র ডিজি এবং এল জি ই ডি’র প্রধান প্রকৌশলীকে বিবাদী দেখিয়ে মামলা দায়ের করেন।অভিযোগে বলা হয় বিসিসির সিসিটিএফ ফান্ডের জন্য গতবছর ৬ সেপ্টেম্বর ২ কোটি ৯৯ লাখ

৯৯ হাজার ৯ শ ৯৯ টাকা ৭৬ পয়সার কাজের টেন্ডার আহবান করে বিসিসি।তুষার নিয়ম মেনে ওই টেন্ডারে অংশ নেন।বিসিসির বিবাদীরা তাকে বাদ দিয়ে বে আইনীভাবে টেন্ডারের ঠিকাদার নিযুক্ত করে বলে তুষার জানতে পারে।তিনি গত ৯ মার্চ বিবাদীদের কাছে গিয়ে সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে তাকে কার্যাদেশ দেয়ার অনুরোধ করে।বিবাদীরা তাকে কার্যাদেশ দেয়া হবেনা বলে জানিয়ে দেয়।তারা বেআইনী ভাবে ঠিকাদার নিয়োগ দেয়ার ঘোষনায় স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দাবী করে মামলা দায়ের হয়।মঙ্গলবার  বাদীর আইনজীবী আজাদ রহমান পুট আপ দিয়ে ৬ জন বিবাদীর  টেন্ডার সংক্রান্ত কর্মকান্ডে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দাবী করেন।আদালত আরজী পর্যালোচনা করে দেখতে পায় আরজীতে তফসিল উল্ল্যেখ করা হয়নি। আদালত বাদীর নিষেধাজ্ঞা আবেদন নথিভুক্ত করে আগামী ৩০ মে মামলার গ্রহনযোগ্যতা ও নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে শুনানীর জন্য দিন নির্দিষ্ট করেন।

Facebook Comments