আজ থেকে সাত মাস বন্ধ থাকবে বরিশালের ১১ লঞ্চ

আপডেট : March, 15, 2017, 10:15 am

বরিশালসহ উপকূলের তিন হাজার কিলোমিটার ঝুঁকিপূর্ণ নৌপথে আজ ১৫ মার্চ থেকে সাত মাস সব ধরনের ছোট লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ঝড়ঝঞ্ঝার মৌসুমে উপকূলে নদ-নদী অশান্ত থাকায় এই সময়কে বিপজ্জনক মৌসুম অভিহিত করে নৌ-দুর্ঘটনা রোধে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।
বিআইডব্লিউটিএর বরিশাল কার্যালয় সূত্র জানায়, ওই তিন হাজার কিলোমিটার পথের মধ্যে বরিশাল নৌ-অঞ্চলের আওতায় তিনটি নৌপথ রয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা এই তিনটি পথ হলো বরিশাল-ইলিশা-মজুচৌধুরীর হাট, চর আলেকজান্ডার-দৌলতখান-মীর্জাকালু ও তজুমদ্দিন-মনপুরা। এরই মধ্যে সংস্থাটি বিপজ্জনক মৌসুমে অননুমোদিত কোনো নৌযান যাতে এসব পথে চলাচল করতে না পারে, সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট নৌযানের মালিক, জেলা প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে চিঠি দিয়েছে। ১৫ মার্চ থেকে ১৫ অক্টোবর—এই সাত মাস এসব পথের নদ-নদী খুব উত্তাল থাকায় প্রতিবছর বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ এই নির্দেশনা জারি করে। ইতিমধ্যে বিআইডব্লিউটিএর বরিশাল আঞ্চলিক কার্যালয় ওই তিনটি পথে ১১টি যাত্রীবাহী লঞ্চের চলাচল এই সাত মাস বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে।
তবে উত্তাল এসব পথে বিপজ্জনক মৌসুমে পাঁচটি লঞ্চ চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এগুলো হলো এমভি পারিজাত, বিআইডব্লিউটিসির খিজির-৫, খিজির-৭, খিজির-৮, এলসিডি কুতুবদিয়া। এই নৌযানগুলোর বে সার্ভে সনদ (সমুদ্রে চলাচলের উপযোগী সনদ) রয়েছে।
বিআইডব্লিউটিএর বরিশাল নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বিআইডব্লিউটিএর ঢাকার কেন্দ্রীয় কার্যালয়

থেকে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি এমভি (মোটর ভেসেল) শ্রেণিসহ সব ধরনের ছোট নৌযান চলাচলের ওপর ওই সময়ের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। নিষেধাজ্ঞার আওতায় ৬৫ ফুট দৈর্ঘ্যের কম এমন সব ধরনের লঞ্চকে এই সময়ে চলাচলের অনুপযোগী ঘোষণা করা হয়।
এরই আলোকে ৭ মার্চ বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর—এই চার জেলার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, কোস্টগার্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের চিঠি দেওয়া হয়েছে।
নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের সূত্রটি আরও জানায়, ভোলার ৭০টি নৌপথে ইঞ্জিনচালিত ছোট নৌকা ও ২৩টি লঞ্চঘাট থেকে ছোট লঞ্চ এবং ইঞ্জিনচালিত কয়েক শ নৌকা যাত্রী পরিবহন করে। যেগুলোর কোনো অনুমোদন বা সমুদ্রে চলাচলের সনদ নেই। এসব নৌযান বন্ধ রাখার ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে জেলা প্রশাসনকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।
বিআইডব্লিউটিএ বরিশালের নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপপরিচালক আজমল হুদা গতকাল মঙ্গলবার  বলেন, ‘বঙ্গোপসাগর ও মেঘনার মোহনার উপকূলীয় তিন হাজার কিলোমিটার নৌপথকে প্রতিবছর ১৫ মার্চ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত বিপজ্জনক মৌসুম হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ঝুঁকিপূর্ণ পথগুলোতে সমুদ্রে চলাচলের উপযোগী সনদ নেই এমন কোনো নৌযান চলাচল করতে পারবে না। এ জন্য নৌযানের মালিকসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে আমরা ইতিমধ্যে চিঠি দিয়েছি। পাশাপাশি এসব নির্দেশ উপেক্ষাকারীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসন যাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে, সে ব্যাপারেও অনুরোধ করা হয়েছে। এ ছাড়া বিআইডব্লিউটিএ প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবে।’

Facebook Comments