শেবাচিমে ইএমওকে চাপ প্রয়োগ করে ব্রাদারদের ভূয়া শারিরীক অসুস্থতার প্রেসকিপশন নেয়ার অভিযোগ

আপডেট : July, 17, 2017, 6:22 pm

বরিশাল : বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের  এক ইমারজেন্সি মেডিকেল অফিসার (ইএমও) এর কাছ থেকে চাপ প্রয়োগ করে পেছনের তারিখে ভূয়া শারিরীক অসুস্থতা প্রদর্শন পূর্বক প্রেসকিপশন গ্রহন করার অভিযোগ উঠেছে কতিপয় ব্রাদারের বিরুদ্ধে। এ অভিযোগ লিখিতভাবে হাসপাতালের পরিচালক বরাবর দিয়েছেন জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত ওই চিকিৎসক ডাঃ রিফাত আহমেদ। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ এসএম সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানায় আগামীকাল মঙ্গলবার সাধারণ ডায়েরি করাসহ আইনানুগ সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, ডাঃ রিফাত আহমেদ আজ সোমবার তার দায়িত্বপালনকালে বেলা ২ টার দিকে ব্রাদার (নার্স) কাদের এবং শাহাবুদ্দিনসহ ৮/১০ জন অসমপূর্ণ তথ্য প্রদান করে চাপ প্রয়োগে ব্যক্তিগত চিকিৎসা পত্রে পেছনের তারিখে

ভূয়া শারিরীক অসুস্থতা প্রদর্শন পূর্বক সার্টিফিকেট/প্রেসকিপশন গ্রহন করে। অভিযোগে চিকিৎসকের অনিচ্ছা এবং অজ্ঞতার সুযোগ নেয়া হয় বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। এ বিষয়ে ব্রাদার শাহাবুদ্দিনের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না এবং তার কিছু বলার নেই বলে জানান। উল্লেখ্য গতকাল রোববার  নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের মহপরিচালক দপ্তর থেকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তিন স্টাফ নার্সকে বদলির আদেশ দেয়া হয়। যারমধ্যে ভূয়া শারিরীক অসুস্থতা প্রদর্শন পূর্বক প্রেসকিপশন গ্রহন করার অভিযোগপত্রের নামধারী অভিযুক্ত সিনিয়র স্টাফ নার্স মোঃ শাহাবুদ্দিন খান ও স্টাফ নার্স আব্দুল কাদের খান। যার মধ্যে মোঃ শাহাবুদ্দিন খানকে কক্সবাজারের টেকনাফস্থ সেন্টমার্টিন ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে এবং আব্দুল কাদের খানকে চট্টগ্রামের সন্দিপ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে বদলী করা হয়েছে।

Facebook Comments