যুক্তরাষ্ট্রে সাহসী নারীর পুরস্কার পাচ্ছেন ঝালকাঠির মেয়ে

আপডেট : March, 30, 2017, 10:29 am

নিজের বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে সাহস দেখিয়েছিলেন বরিশাল বিভাগের ঝালকাঠি জেলার মেয়ে শারমিন আক্তার। শারমিনের এই সাহসিকতার পুরস্কার স্বরুপ তাকে যুক্তরাষ্ট্রের উইমেন কারেজ (আইডব্লিউওসি) অ্যাওয়ার্ড-২০১৭ দেয়া হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশের ১৪ জন নারী এই সম্মাননা পাচ্ছেন।

 

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে শারমিনের হাতে পুরস্কারটি তুলে দেবেন মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প ও রাজনীতি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি থমাস শ্যানন। যারা বিভিন্ন প্রতিকূলতা এবং ঝুঁকির মধ্যে থেকেও শান্তি প্রতিষ্ঠা, ন্যায়বিচার, মানবাধিকার, নারী-পুরুষের মধ্যে সমতা এবং নারীদের ক্ষমতায়নে বিশেষ অবদান রেখেছেন তাদের স্বীকৃতি দিতে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর এই পুরস্কারটি দিয়ে থাকে।

২০০৭ সালে এই পুরস্কার দেয়ার প্রচলন শুরু হয়। যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র

দফতরের পুরস্কারটি এ পর্যন্ত ৬০টি দেশের শতাধিক নারী পেয়েছেন। শারমিন বর্তমানে ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন। তিনি পড়ালেখা শিখে আগামীতে আইনজীবী হতে চান।

ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস সূত্র জানায়, শারমিনকে মাত্র ১৫ বছর বয়সে তার মা জোর করে বিয়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান তিনি। লেখাপড়া চালিয়ে যান। শারমিনের মতো এমন পরিস্থিতিতে দক্ষিণ এশিয়ার তরুণীরা বিয়েতে বসতে বাধ্য হন। শারমিনের সাহসিকতা সকলের জন্য দৃষ্টান্ত।

জানা গেছে, শারমিনকে তার চাইতে কয়েক দশক বেশি বয়সীর সঙ্গে বিয়ে দেয়া হচ্ছিল। পরে শারমিন প্রতিবাদ করেন এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতায় তার মা ও হবু বরকে প্রচলিত আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়।

Facebook Comments