ঝালকাঠিতে অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পণ আইনের মামলায় চারজনের পাঁচ বছর করে কারাদন্ড

আপডেট : April, 3, 2017, 8:43 pm

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃঝালকাঠিতে অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যাবর্তণ আপিল ট্রাইব্যুনাল জালিয়াতি করে সরকারি সম্পত্তি দখলের চেস্টার অভিযোগে চারজনকে পাচঁ বছর করে সশ্রম কারাদ- প্রদান করেছে। আজ সোমবার বিকালে ট্রাইব্যুনালের বিচারক অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ মোহাম্মদ বজলুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।
সাজাপ্রাপ্তরা হল আইয়ুব আলী শরীফ তাঁর স্ত্রী মমতাজ বেগম, ভাই মো. মজিবর শরীফ ও ছেলে নূরনবী শরীফ ওরফে বাবুল শরীফ। এদরকে তিনটি মামলায় ৫ বছর করে সশ্রম কারাদ- ও একলাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ দেওয়া হয। একই দিন অন্য একটি আপিল মামলায় ১১ জনকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ দেওয়া হয়। এই মামলার সাজাপ্রাপ্তরা হচ্ছেন রাজাপুর উপজেলার আঙ্গারিয়া গ্রামের সুলতান হাওলাদারের ছেলে সাহেব আলী, ইউসুব আলী, মো. নজরুল ইসলাম হাওলাদার, মজিবুর রহমান, জালাল হাওলাদার, হেনারা বেগম এবং আউয়ুব আলী হাওলাদারের ছেলে সম্রাট হাওলাদার, দেলোয়ার হাওলাদার, মো. রাজু, আখি আক্তার ও ফাতেমা বেগম। এই মামলার আপিলকারী ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক।
আর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পণ ট্রাইবুনাল ৫৪/১৫ মামলায় আইয়ুব আলী শরীফ ও

তার স্ত্রী মমতাজ বেগম জাল জালিয়াতি করে সরকারের ২.০৭ একর জমি আত্মসাতের জন্য জাল দলিল ও ভুয়া ডিক্রী তৈরি করে। অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পন আপিল ৭/২০১৪ মামলায় বিরোধীয় জমির পরিমান ২.০৮ একর। এই মামলায় মজিবর শরীফ ও তার পুত্র নুরুনবী শরীফকে ৫ বছর সশ্রম কারাদ- ও ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করে। আপিল ২৪/১৫ মামলায় বিরোধীয় জমির পরিমান ২.৫৬ একর। এই মামলায় আইয়ুব আলী শরিফের স্ত্রী মমতাজ বেগমকে ৫ বছর সশ্রম কারাদ- ও একলাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়। আইয়ুব আলী শরীফ রাজাপুর উপজেলা সদরের খেলারমাঠ, মন্দির, খাল এবং জেলখানার জায়গা জাল-জালিয়াতি করে আত্মসাত করার চেষ্টা করে আসছিল।
এছাড়া ৫২/১৫ মামলায় রাজাপুর উপজেলার আঙ্গারীয়া গ্রামে বিরোধীয় সম্পত্তির পরিমান .৯৭ একর। এই মামলায় ১১ জনকে জরিমানা করা হয়েছে তবে এই ৪টি মামলায় আসামীরা আদালতে হাজির না থাকায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে। অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পন আইনের ৩২ (ক)(খ) ধারায় এ সাজা ও জরিমানার আদেশ প্রদান করা হয়।

Facebook Comments