তৃতীয় দিনেও বন্ধ রয়েছে বরিশাল-পটুয়াখালী রুটে সরাসরি বাস চলাচল

আপডেট : April, 9, 2017, 11:57 am

 

বরিশাল : শ্রমিকদের মধ্যে মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে বরিশাল-পটুয়াখালী রুটে সরাসরি বন্ধ থাকা বাস চলাচলের বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত না হওয়ায় তৃতীয় দিনেও যাত্রীরা ভোগান্তির মধ্য দিয়েই এ রুটে চলাচল করছে।

গত শুক্রবার বিকেল থেকে বরিশাল থেকে পটুয়াখালী, বাউফল, কুয়াকাটা, বরগুনা এবং এসব রুট থেকে বরিশালে সরাসরি কোন বাস চলাচল করছে না।

তবে পটুয়াখালী মালিক সমিতির বাস লেবুখালি ফেরির দুমকি প্রান্ত পর্যন্ত এবং বরিশাল মালিক সমিতির বাস লেবখালি ফেরির বাকেরগঞ্জ প্রান্ত পর্যন্ত যাত্রী নিয়ে যাচ্ছে।

পরে যাত্রীদের নিজস্ব পন্থায় ফেরি নয়তো খেয়া দিয়ে পায়রা নদী পাড় হয়ে অপর প্রান্তে গিয়ে বাসে উঠে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে।

শুক্রবার বিকেল থেকে আজ রোববার সকাল পর্যন্ত এভাবেই বাস চলাচল করছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল রুপাতলী বাসস্ট্যান্ডের মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওসার হোসেন শিপন।

তিনি জানান, সরাসরি বাস চলাচল করতে না পারায় লেবুখালি ফেরিঘাটে গিয়ে যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। তাদের পÿ থেকে শ্রমিকদের বিরোধ নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছে। বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি পটুয়াখালী জেলার এসপিকে বিষয়টি

দেখার জন্য বলেছেন।

শ্রমিকরা জানায়, যাত্রী তোলাকে কেন্দ্র করে বরিশাল মালিক সমিতির নিউ আমান পরিবহনের সুপারভাইজারকে বৃহষ্পতিবার মারধর করে পটুয়াখালী মালিক সমিতির নিউ পর্যটন নামের একটি বাসের স্টাফরা।

পরবর্তীতে নিউ পর্যটন গাড়িটি যাত্রী নিয়ে বৃহষ্পতিবার বিকেলে বরিশাল রুপাতরী বাসস্ট্যান্ডে আসলে পূর্ব ঘটনার জের ধরে ওই বাসের স্টাফদের মারধর করা হয়। এরপর থেকেই দুই জেলা শ্রমিকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পাশাপাশি কোন শ্রমিক ইউনিয়নই এক জেলার বাস অন্য জেলায় যেতে বা আসতে দিচ্ছে না।

বরিশাল জেলা বাস, মিনিবাস, মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শহিদুল ইসলাম টিটু জানান, বিষয়টি সমাধানের জন্য চেষ্টা চলছে। আজ সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে বরিশাল শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা পটুয়াখালীতে যাবেন এ বিষয়ে সেখান শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের সাথে কথা বলার জন্য।

পটুয়াখালী বাস মালিক সমিতির সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন মৃধা জানান, শ্রমিকদের মধ্যে মারামারির ঘটনার জের ধরে শ্রমিকরাই সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। এ বিষয়ে মালিক সমিতিকে বাস শ্রমিক নেতারা কিছুই অবহিত করেননি।

Facebook Comments