লজ্জাজনক হারের পরও কোহলিদের পাশে টেন্ডুলকার

আপডেট : February, 26, 2017, 2:21 pm

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে মাত্র তিনদিনের মধ্যেই ৩৩৩ রানের বড় ব্যবধানের পরাজয় এখন সারা বিশ্ব জুড়েই আলোচিত-সমালোচিত ভারতীয় শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন-আপ।
সাবেক অধিনায়ক ও ভারতের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার উত্তরসূরীদের এই বাজে পারফরমেন্সে এখনই হতাশ হতে চাচ্ছেনা না। সে কারণেই বিরাট কোহলি ও তার সতীর্থদের উজ্জীবিত করার জন্যই বার্তা পাঠিয়েছেন এই লিটল মাস্টার।
গত দুই বছরে ভারতের ব্যাটিংয়ে এত বাজে পারফরমেন্স দেখা যায়নি, এটা অধিনায়ক কোহলি নিজেও ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে অকপটেই স্বীকার করেছেন। বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দলটি প্রথম ইনিংসে ১০৫ রানে গুটিয়ে যাবার পরে দ্বিতীয় ইনিংসে করেছে মাত্র ১০৭ রান। এর ফলে চার ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।
কোহলির ক্রিকেটীয় আইডল টেন্ডুলকার বলেছেন, ‘একটি পরাজয়ে বড় একটি সিরিজের সার্বিক ফলাফল হতে পারে না। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটি আমাদের জন্য সত্যিকার অর্থেই কঠিন ছিল। কিন্তু এটা খেলারই একটি অংশ, এমন হতেই পারে। প্রথম টেস্টে পরাজয়ের অর্থ এই নয় যে আমরা
সিরিজ হেরে গেছি। সিরিজে এখনো আমাদের সুযোগ আছে। ভারতের বর্তমান দলটি স্পিরিট সম্পর্কে আমি জানি। আমি জানি তারা সবাই কঠিন লড়াই করেই ফিরে আসবে। অস্ট্রেলিয়ান দলও এটা জানে। কারন আমরা যখন তাদের পরাজিত করি তখন আমরা জানি যে তারাও কষ্ট করেই ফিরে আসবে। আমি নি:সন্দেহে বলতে পারি পরের ম্যাচগুলোতে ভারত ভালভাবেই লড়াই করে ফিরে আসবে।’
যদিও টেন্ডুলকারের মত এতটা আশাবাদী মনোভাব পোষন করেননি ভারতের আরেক কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাস্কার। তিনি বলেন, চা বিরতির পর মাত্র আধা ঘন্টার মধ্যে অল-আউট হয়ে যাওয়া অবিশ্বাস্য। ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা কিছুটা খামখেয়ালি করেছে। তাদের বোঝা উচিত ছিল ক্রিজে থাকটা জরুরি।
তিনি আরো বলেন, আমার মনে পড়ে না বিগত কয়েক বছরে মাত্র আড়াই দিনে ভারত কবে টেস্ট ম্যাচ হেরেছে। অস্ট্রেলিয়ান স্পিনারদের ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা যেভাবে মোকাবেলা করেছে তা কিছুটা বিস্ময়কর। আমি দলটির মানসিকতা দেখে হতাশ। দুই ইনিংসে ৭৫ ওভারে অল-আউট হওয়া কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না। ভারতীয় দলের এটা অন্যতম বাজে পরাজয়।
Facebook Comments