মঙ্গলে থ্রিডি প্রিন্টিং প্রযুক্তিতে বসতি স্থাপনের চিন্তা

আপডেট : February, 26, 2017, 2:35 pm

বেহরোখ খোশনেভিস, ইউনিভার্সিটি অব সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের এই অধ্যাপক বলছেন- সৌরজগতে আমাদের প্রতিবেশী গ্রহ মঙ্গলে মানুষের বসতি স্থাপন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।
কিন্তু তার আগে এমনসব রোবট তৈরি করে মঙ্গলে পাঠাতে হবে যেগুলো থ্রিডি প্রিন্টিং প্রযুক্তিতে এই লাল গ্রহের মাটিতে মানুষের বেঁচে থাকার সকল উপকরণ প্রস্তুত করতে সাহায্য করবে।
তিনি বলেন, ‘চাঁদকে তুলে রাখার সময় হয়েছে, মানুষের পরবর্তী বড় পদক্ষেপ হতে যাচ্ছে মঙ্গলের মাটিতে পা দেয়া এবং পৃথিবীর বাইরে তথা এই উষর গ্রহে বসতি স্থাপন করা।’
সৌরজগতের চতুর্থ এই গ্রহটি এতোটাই ঠাণ্ডা যে সেখানকার শীত ঋতুতে তাপমাত্রা প্রায় মাইনাস ৮৭
ডিগ্রী সেলসিয়াসে নেমে যায়। অক্সিজেনহীন গ্রহটির উপরিভাগ খুবই পাথুরে ও উষর।
অধ্যাপক খোশনেভিস ২০১১ সাল থেকেই নাসার সঙ্গে মঙ্গলে বসতি স্থাপন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এছাড়া ২০০৪ সালে তিনি বৈপ্লবিক থ্রিডি প্রিন্টিং প্রযুক্তির কনচ্যুয়ার ক্রাফ্টিং (সিসি) আবিষ্কার করেন, যার মাধ্যমে পৃথিবীর বুকে একদিন সময়ের মধ্যে ২৫০০ বর্গফুটের একটি বিল্ডিং প্রিন্ট করা যায়।
এছাড়া ২০১৬ সালেও তিনি নাসার কাছ থেকে পুরস্কৃত হন থ্রিডি প্রিন্টিংয়ের আরো একটি প্রযুক্তি আবিষ্কার করে, যেটি মঙ্গলের মাটিতে প্রাপ্ত উপকরণ ব্যবহার করেই শূন্য ত্বরণে কোন অবয়ব বা কাঠামো প্রিন্ট করতে সক্ষম। সিএনএন।
Facebook Comments