উজিরপুর থেকে ছিনিয়ে নেয়া ৩৩০ বস্তা খেসারী ডাল উদ্ধার

আপডেট : June, 18, 2017, 4:07 pm

বরিশাল :বরিশালের উজিরপুর থেকে ছিনিয়ে নেয়া ট্রাকভর্তি ৩৩০ বস্তা খেসারীর ডাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। পাশাপাশি ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত ট্রাক উদ্ধার ও মূল পরিকল্পনাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ রোববার বেলা ২ টায় বরিশাল পুলিশ লাইন্সের ইন সার্ভিসে সেন্টারের সভাকক্ষে জেলা পুলিশ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উজিরপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শাহাবুউদ্দিন কবীর জানান, চলতি বছরের গত ৮ জুন পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানাধীন গুটাবাছা এলাকার ব্যবসায়ী মোঃ জলিল মীর ও সোঃ জুলহাস আকন ক্রয়কৃত খেসারীর ডাল পাবনার উদ্দেশ্যে নেয়ার জন্য দুটি ট্রাক ভাড়ো করেন। ট্রাক দুটির প্রতিটিতে ৩৩০ বস্তায় করে ১৯ হাজার ৮ শত কেজি খেসারীর ডাল ভর্তি করা হয়। পটুয়াখালী থেকে পাবনার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়া ট্রাকদুটি ১০ জুন রাত সোয়া ১ টার দিকে বরিশালের উজিরপুরে এসে পৌছায়। উজিরপুরের ইচলাদিতে পৌছালে জুলহাস আকনকে বহন করা ট্রাকের ইঞ্জিনে সমস্যা দেখা দেয়। সেটি সেখানে রাস্তার পাশে থামিয়ে মেরামত করার প্রস্তুতি চালানো হচ্ছিলো। অপরদিকে জুলহাস আকনের পার্টনার জলিল মীরকে বহন করা ট্রাক সামনে এগিয়ে গিয়ে জয়শ্রী এলাকায় পৌছায়। এসময় ট্রাকের মালিক জলিল শেখ ও তার ২ সহযোগী জলিল মীরকে ভয় দেখিয়ে ট্রাক থেকে নামিয়ে

দিয়ে ডালভর্তি ট্রাক নিয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ব্যবসায়ীরা ওই ট্রাকের সন্ধানে বিভিন্ন স্থানে গেলেও কোন সুরাহা পাননি। যার দরুন ১৭ জুন ব্যবসায়ী জুলহাস আকন ওই ঘটনায় বাদী হয়ে উজিরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে ডিবির একটি টিম অপারেশন শুরু করে। ১৭ জুন রাতেই খুলনা ও যশোর জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে কেশবপুর থানা এলাকা থেকে ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি মুল আসামী ও পরিকল্পনাকারী খুলনার ডুমুরিয়া থানার গজেন্দ্রপুরের এমারত শেখের ছেলে জলিল শেখ (৫০) কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত জলিল শেখের দেয়া তথ্যানুযায়ী যশোর জেলার অভয়নগর থানাধীন নওয়াপড়ার রফিকুল ইসলাম ভূইয়ার গোডাউন থেকে ছিনতাই হওয়া ৩৩০ বস্তা ডাল জব্দ করা হয়, যার মূল আনুমানিক ১০ লাখ টাকা। তবে রফিকুল ইসলামকে ওই মালের চালানা দেখাতে না পারায় সেটি এখনো বিক্রয় করতে পারেনি ছিনতাইকারীরা। উজিরপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ শাহাবুদ্দিন কবীর আরো জানান, গোডাউন মালিককে মামলার সাক্ষী রাখা হয়েছে।

পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িত পলাতক আরো ২/৩ আসামীকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে । সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি ও অপরাধ) মোল্লা আজাদ হোসেন সহ সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলো

Facebook Comments