চেক প্রতারনার অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা

আপডেট : June, 18, 2017, 11:21 pm

চেক প্রতারনার অভিযোগে পটুয়াখালী সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক অলি উল্লাহর বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল রবিবার চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রতারনার শিকার বাকেরগঞ্জের নেছারউদ্দিন আহাম্মেদ ও সেলিম হাওলাদার মামলা দুটি দায়ের করেন। আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইন তা আমলে নিয়ে সমন জারির নির্দেশ দেন। অভিযুক্ত অলিউল্লাহ বাকেরগঞ্জ উত্তমপুর দত্তেরবাদ এলাকার মৃত মৌলবী আলী আহাম্মেদের ছেলে এবং নগরীর পশ্চিম কাউনিয়া হাজের খাতুন স্কুল সড়কের বাসিন্দা। আদলত সূত্র জানায়, পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে বাকেরগঞ্জ চরামদ্দি বাদলপাড়ার নেছারউদ্দিনের কাছ থেকে ৩৫ লক্ষ টাকা ধার নেয় শিক্ষক অলিউল্লাহ। পরে নেছারের টাকার প্রয়োজনে সে শিক্ষকের কাছে টাকা ফেরত

চায়। এতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারী টাকা ফেরত দিতে নেছারকে ওই পরিমান টাকার চেক দেয় শিক্ষক। ১৩ এপ্রিল চেকটি ব্যাংকে জমা দিলে তা ডিসঅনার হয়। ৩০ এপ্রিল শিক্ষককে আইনী নোটিশ দেয় নেছার। অপরদিকে একই এলাকার সেলিম হাওলাদারের কাছ থেকে ৬ মাসে ফেরত দেয়ার শর্তে ৫০ লক্ষ টাকা ধার নেয় শিক্ষক অলিউল্লাহ। শর্তের মেয়াদ শেষে টাকা ফেরত চায় সেলিম। এতে ২৩ ফেব্রুয়ারী ওই পরিমান টাকার চেক দেয় অলিউল্লাহ। ১৩ এপ্রিল চেকটি ব্যাংকে জমা দিলে তা ডিসঅনার হয়। ৩০ এপ্রিল শিক্ষককে আইনী নোটিশ দেয় সেলিম। উভয় নোটিশের কোন জবাব না দেয়ায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করলে বিচারক ওই নির্দেশ দেন।

Facebook Comments